দুপুরে খালেদাকে দেখতে যাবে মেডিক্যাল বোর্ড
সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮
‘গ্রামের মানুষও শহরের মতো সুযোগ-সুবিধা পাবে’
সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৮

এটাই মাশরাফির শেষ এশিয়া কাপ

স্পোর্টস ডেস্ক: মাশরাফি মুর্তজার এটাই শেষ এশিয়া কাপ। অনেকটাই নিশ্চিত তা। এরপর এশিয়া কাপ হবে টি ২০ ফরম্যাটে। মাশরাফি এই ফরম্যাট থেকে আগেই অবসর নিয়েছেন। ৩৫ ছুঁই ছুঁই এই ডান-হাতি পেসারের এশিয়া কাপে শেষের শুরু হচ্ছে আজ।

২০১৬ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে এশিয়া কাপের গত আসর হয়েছিল টি ২০ ফরম্যাটে। এশিয়া কাপে অধিনায়ক হিসেবে তখন অভিষেক হয় মাশরাফির। ওয়ানডে ফরম্যাটে এশিয়া কাপে তার অধিনায়কত্বের অভিষেক হচ্ছে আজ।

হয়তো শেষ এশিয়া কাপও। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন বৃহস্পতিবার দুবাই যাওয়ার আগে যুগান্তরকে বলেন, ‘এটা বড় টুর্নামেন্ট। পরীক্ষা করার কোনো সুযোগ নেই। সম্ভাব্য সেরা দলটাই আমরা পাঠিয়েছি। কয়েকজন ক্রিকেটার ভালো করলে ভবিষ্যতে আমাদের জন্য সুবিধা হবে।’

দুবাই যাওয়ার পর সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি মুর্তজা জানিয়েছেন, ‘এশিয়া কাপ বাংলাদেশের জন্য আগামী বিশ্বকাপের প্রস্তুতি।’

ব্যাটিংয়ে তামিমের উদ্বোধনী জুটির সঙ্গে বাংলাদেশের জন্য আরেকটি দুর্ভাবনা হল ‘ফিনিশার’ নিয়ে। সবশেষ কয়েক বছর সাব্বির রহমান, নাসির হোসেনসহ বেশ কয়েকজনকে নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্ট আশা করলেও কেউ সফল হতে পারেননি।

এবার নির্বাচকরা বেছে নিয়েছেন ডান-হাতি ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুনকে। সঙ্গে মোসাদ্দেক হোসেন ও আরিফুল হক। ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম সফল কোচ মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এই পজিশনে (ছয়-সাত) খেলাটা আমাদের ক্রিকেট সংস্কৃতির সঙ্গে সেভাবে গড়ে ওঠেনি। এ জায়গায় যাদের বিবেচনা করা হচ্ছে তাদের যথেষ্ট সুযোগ দেয়া উচিত। দু’একটা ম্যাচে সুযোগ দিয়ে ভালো ফিনিশার পাওয়া কঠিন হবে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভালো বোলিং করেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ব্যাটিংয়েও কিছু রান করেছেন। এশিয়া কাপে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে দ্বিতীয় স্পিনার হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করার সুযোগ মিরাজের সামনে।

তিন পেসার নিয়ে খেললে মাশরাফি, মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেনের একাদশে থাকা প্রায় নিশ্চিত। বিকল্প যোগ্য পেসারের খোঁজে বাংলাদেশ। এশিয়া কাপে ওয়ানডে অভিষেকের অপেক্ষায় আবু হায়দার রনি। একাদশে সুযোগ পেলে এবং সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে দলের জন্য হবে তা স্বস্তিদায়ক।

এশিয়া কাপ গ্রুপপর্বের ফিকশ্চার

১৫ সেপ্টেম্বর : বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা

১৬ সেপ্টেম্বর : পাকিস্তান ও হংকং

১৭ সেপ্টেম্বর : শ্রীলংকা ও আফগানিস্তান

১৮ সেপ্টেম্বর : ভারত ও হংকং

১৯ সেপ্টেম্বর : ভারত ও পাকিস্তান

২০ সেপ্টেম্বর : বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান

(সংযুক্ত আরব আমিরাতে সব ম্যাচ শুরু বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টা ৩০ মিনিটে)।

সিটিনিউজ সেভেন ডটকম /এম.এস

Please follow and like us:
20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: