ঈদুল আযহায় সাতক্ষীরার মসলা বাজার জমজমাট; ব্যস্ত সময় পার করছে কামারেরা
আগস্ট ১৯, ২০১৮
সাতক্ষীরায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে যুবক নিহত
আগস্ট ১৯, ২০১৮

বন বিভাগের কর্মচারীদের ঈদের ছুটি বাতিল, সুন্দরবনের সম্পদ রক্ষায় রেডএলার্ট জারি

আওলাদ হুসাইন, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: পবিত্র ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে সুন্দরবনের খুলনা ও সাতক্ষীরা রেঞ্জের রেঞ্জে বনজ সম্পদ পাচার রোধসহ যেকোনও ধরণের নাশকতারোধে বন বিভাগের পক্ষ থেকে রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে।

ঈদ মৌসুম টার্গেট করে যাতে কোনওভাবেই পাচারকারী চক্রের দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি না পায় সেজন্য এ দুটি রেঞ্জে বিশেষ সতর্ক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আর এ কারণে বনকর্মকর্তাদের ঈদকালীন ছুটি বাতিল করার পাশাপাশি টহল ব্যবস্থা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সুন্দরবন পশ্চিম বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোঃ বশিরুল-আল মামুন বলেন, খুলনা ও সাতক্ষীরা রেঞ্জের ৯ টি স্টেশন ও বিভিন্ন ক্যাম্পের কর্মকর্তাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়েছে যে, পাচাররোধে ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ বনপ্রহরী ও কর্মকর্তাদের কোনমতেই ছাড় দেওয়া হবে না। ঈদ পরবর্তী এক সপ্তাহ এই রেড এলার্ট বলবৎ থাকবে।

তিনি আরো জানান, ঈদকে সামনে রেখে বন থেকে বনজদব্র পাচার ও প্রানী বিশেষ করে হরিণ শিকার বৃদ্ধির আশঙ্কায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠকে রেঞ্জ কর্মকর্তা, বন কর্মকর্তা ও বনপ্রহরীদের বনের গহীনে বিষ প্রয়োগ করে মাছ শিকার বন্ধে বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়াসহ টহল ব্যবস্থা জোরদার করার ওপর তাগিদ দেয়া হয়। এ ছাড়া বনে যাতে করে দুর্বৃত্তরা প্রবেশ করে কোনও ধরনের অঘটন ঘটাতে না পারে সেজন্য সজাগ থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সুন্দরবনের বিশেষ টিম স্মার্ট খুলনা রেঞ্জের টিম লিডার মোঃ সুলতান মাহমুদ টিটু বলেন, ঈদ উপলক্ষে সার্বক্ষনিক তাদের টহল কার্যক্রম চলমান থাকবে। বন বিভাগের খুলনা রেঞ্জ সূত্রে জানা গেছে,পবিত্র ঈদুল আযাহাকে সামনে রেখে সুন্দরবনের হরিন শিকার, অবৈধভাবে গাছ কাঁটা এবং জেলেদের নিকট থেকে বনদস্যূদের চাঁদা আদায়রোধে গত গতকাল শনিবার বেলা ১১ টায় খুলনা রেঞ্জ কর্মকর্তার কার্যালয়ে এক জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিশেষ বিশেষ টিম গঠন করে টহল জোরদার সহ প্রত্যেক ষ্টেশন কর্মকর্তার সমন্বয়ে টহল কার্যক্রম অব্যাহত রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

খুলনা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক(এসিএফ) এস এম শোয়াইব খানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন বানিয়াখালি ষ্টেশন কর্মকর্তা মোঃ ওবাইদুল্যাহ, কাশিয়াবাদ ষ্টেশন কর্মকর্তা মোঃ সুলতান মাহমুদ টিটু, কালাবগি ষ্টেশন কর্মকর্তা শ্যামা প্রসাদ রায়, নলিয়ান ষ্টেশন কর্মকর্তা মোঃ মকরুল হোসেন আকন, সুতারখালি ষ্টেশন কর্মকর্তা শফিউল আলম সহ বিভিন্ন টহল ফাঁড়ির কর্মরত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা। সভায় সিধান্ত নেওয়া হয় যে ঈদকে সামনে রেখে সুন্দরবনে এক শ্রেনীর চোরাকারবারীরা এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে সুন্দরবনের কাঠ পাচার করে আর্থিক ফায়দা লুটে থাকে। এ ছাড়া এক শ্রেনীর অসাধু শিকারী চক্র মায়াবি হরিন নিধনযজ্ঞে মেতে ওঠে। এ বছর এ সুযোগ যাতে কাজে না লাগাতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখে বন বিভাগ থেকে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তার বলয়।

বুড়িগোয়ালিনী ষ্টেশন কর্মকর্তা মোঃ কবির উদ্দিন বলেন, ঈদকে সামনে রেখে তার অধিনস্থ এলাকায় টহল কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

খুলনা রেঞ্জের সহকারি বন সংরক্ষক (এসিএফ) মোঃ শোইয়েব খান বলেন, ইতোমধ্যে ঈদুল আযাহাকে সামনে রেখে বিভিন্ন ষ্টেশন ও টহল ফাঁড়িতে কর্মরত বন বিভাগের ষ্টাফদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে টহল কার্যক্রম পরিচালনার জন্য। তাছাড়া বিশেষ টিমের পাশাপাশি রাত- দিন বিভিন্ন ষ্টেশন ও টহল ফাঁড়িড় সমন্বয়ে গঠিত টিম সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকায় টহলকার্যক্রম চালাবে বলে তিনি জানান।

সিটিনিউজ সেভেন ডটকম /এম.এস

Please follow and like us:
20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: