অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে যা করবেন
জুন ২৭, ২০১৮
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার আপিল শুনানি ৩ জুলাই
জুন ২৭, ২০১৮

এবার মহাকাশে আবর্জনা পরিষ্কার করতে ১ম স্যাটেলাইট

প্রযুক্তি ডেস্ক: মহাকাশের আবর্জনা পরিষ্কার করার সম্ভাব্য সমাধান হিসাবে প্রথম স্যাটেলাইট ছাড়া হল ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশন থেকে৷ খুব তাড়াতাড়ি এই স্যাটেলাইটটি কক্ষপথে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করবে৷এপ্রিল মাসে ফ্লোরিডা থেকে একটি স্পেসএক্স ড্রাগন স্পেসক্রাফ্টে করে লঞ্চ করা হয়েছিল ইতিহাস সৃষ্টিকারী এই স্যাটেলাইটটিকে৷

‘RemoveDEBRIS mission’ নামের এই স্যাটেলাইটটি ব্রিটেনে তৈরি করা হয়েছিল৷ পৃথিবীর কক্ষপথে ঘুরতে থাকা ভয়ঙ্কর স্পেস আবর্জনা পরিষ্কার করার এটাই গোটা বিশ্বে প্রথম প্রচেষ্টা৷ ১০০ কিলোগ্রামের এই স্পেসক্রাফ্টটি একটি জাল ও একটি হারপুন ব্যবহার করে ভাসতে থাকা স্পেস আবর্জনাকে ধরার চেষ্টা করবে৷ সেই সঙ্গে স্যাটেলাইটটি তার অত্যাধুনিক ক্যামেরা ও ব়্যাডার সিস্টেমেরও পরীক্ষা করবে৷

একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, এই পরীক্ষাটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ কারণ, এই গ্রহকে কেন্দ্র করে ঘুরে বেরাচ্ছে হাজার হাজার স্পেস আবর্জনা৷ যাদের মধ্যে বেশ কিছু আবর্জনা একটি গতিসম্পন্ন বুলেটের থেকেও বেশি গতিতে ঘুরে বেরাচ্ছে৷ যা মূল্যবান স্যাটেলাইট এমনকী, ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনের জন্যও ক্ষতিকারক হয়ে উঠতে পারে৷

পরীক্ষা নিরীক্ষার পর্যায় সম্পূর্ণ হয়ে গেলে স্যাটেলাইটটি একটি পাল খুলে দেবে৷ যা স্যাটেলাইট ও আবর্জনাগুলিকে কক্ষপথ থেকে বের হয়ে আসতে সাহায্য করবে এবং পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের সময়ই পুড়ে যাবে৷ ইউনিভার্সিটি অফ সারের একজন অধ্যাপক গুগলেলমো অ্যাগলট্টিটি বলেন, ‘‘এই পরীক্ষা-নিরীক্ষা সফল হলে ভবিষ্যতে ‘RemoveDEBRIS’-এর প্রযুক্তি অন্যান্য মিশনের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা যাবে৷’’

‘RemoveDEBRIS mission’ – নেতৃত্ব দিচ্ছে সারে বিশ্ববিদ্যালয়৷ স্যাটেলাইটটি তৈরি করেছে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ছোট স্যাটেলাইট প্রস্তুতকারক সারে স্যাটেলাইট টেকনোলজি লিমিটেড (এসএসটিএল)৷ যার প্রযুক্তি ডিজাইন করেছে এয়ারবাস৷

সিটিনিউজ সেভেন ডটকম /এম.এস

Please follow and like us:
20

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: